ঢাকা ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
জনপ্রিয় দৈনিক আজকের ঠাকুরগাঁও পত্রিকায় আপনাকে স্বাগতম... উত্তরবঙ্গের গণমানুষের ঠিকান এই স্লোগানকে সামনে রেখে দেশ জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক আজকের ঠাকুরগাঁও এর জন্য, দেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি কলেজে একযোগে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে। আপনি যদি সৎ ও কর্মঠ হোন আর অনলাইন গনমাধ্যমে কাজ করতে ইচ্ছুক তবে আবেদন করতে পারেন। আবেদন পাঠাবেন নিচের এই ঠিকানায় ajkerthakurgaon@gmail.com আমাদের ফেসবুল পেইজঃ https://www.facebook.com/ajkerthakurgaoncom প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন মোবাইল : ০১৮৬০০০৩৬৬৬

ভাড়া চাওয়ায় বৃদ্ধ রিকশাচালককে যুবকের থাপ্পর, মুহুর্তে ভিডিও ভাইরাল

রুবেল রানা
  • আপডেট সময় : ০৭:০৪:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪
  • / 25
আজকের ঠাকুরগাঁও অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রিকশাভাড়া চাওয়াকে কেন্দ্র করে ঠাকুরগাঁওয়ে এক বৃদ্ধ অটোরিকশা চালককে মারধর করেছে এক যুবক। বৃদ্ধকে মারধরের পরপরই প্রত্যক্ষদর্শীদের তোপের মুখে পড়েন ওই যুবক। এই ঘটনার ১ মিনিট ৮ সেকেন্ড দীর্ঘ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

শনিবার (৩০মার্চ) বিকেলে জেলা শহরের চৌরাস্তায় এ ঘটনাটি ঘটে বলে ভিডিও সূত্রে জানা গেছে। এ নিয়ে আলোচনা, সমালোচনা ও নিন্দার ঝড় ওঠে।

এদিকে বৃদ্ধ অটোরিকশা চালককে মারধরের ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর ওই যুবককের বিচার দাবি করেছেন নেটিজেনরা। তবে অভিযুক্ত যুবক ও ভুক্তভোগী অটোরিকশা চালককের পরিচয় এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

ঘটনার সময় এক প্রত্যক্ষদর্শীর ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যায়, বৃদ্ধ রিকশাচালক কান্নাজড়িত কণ্ঠে পথচারীদের বলছেন ৩০ টাকা ভাড়া চাওয়ায় ওই যুবক আমাকে থাপ্পড় মারে এবং নোংরা ভাষায় গালিগালাজ করেন। এসময় বৃদ্ধ অটোচালক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। আর বলতে থাকেন আমি কি দোষ করেছি, আমি রোজা আছি, কেন আমাকে থাপ্পড় মারলো?

বৃদ্ধকে থাপ্পড় মারার পর পথচারীদের তোপের মুখে পড়েন ওই যুবক। এসময় বৃদ্ধ রিকশা চালকের কাছে ক্ষমা চাইতে বললে যুবক বলে উঠে রিকশাওয়ালার দোষ, আমি কেন ক্ষমা চাইবো।

বৃদ্ধকে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ায় এরই মধ্যে ওই যুবককের বিচার চেয়ে নেটিজেনরা বিভিন্ন মন্তব্য করতে থাকেন। আর তার কঠোর শাস্তি দাবি করেন যাতে ভবিষ্যতে আর কোন ব্যক্তির উপর এমন অমানবিক আচরণ করতে না পারেন।

আর নিরীহ মানুষের ওপর নির্যাতনের এরকম ঘটনা অহরহ ঘটছে জেলাজুড়ে। এসব ঘটনায় জড়িতদের বেশিরভাগ উঠতি বয়সের তরুণ-তরুণী। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো তৎপরতা না বাড়ালে এই যুবসমাজকে নৈতিক স্খলনের হাত থেকে রক্ষা করা কঠিন হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন সমাজ উন্নয়নকর্মী এস.এম. মনিরুজ্জামান মিলন।
তবে গতকালের ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কেউ অভিযোগ করলে আইনানুক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.বি.এম ফিরোজ ওয়াহিদ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বার্তা সম্পাদক

দৈনিক আজকের ঠাকুরগাঁও এর বার্তা সম্পাদক
ট্যাগস :

ভাড়া চাওয়ায় বৃদ্ধ রিকশাচালককে যুবকের থাপ্পর, মুহুর্তে ভিডিও ভাইরাল

আপডেট সময় : ০৭:০৪:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

রিকশাভাড়া চাওয়াকে কেন্দ্র করে ঠাকুরগাঁওয়ে এক বৃদ্ধ অটোরিকশা চালককে মারধর করেছে এক যুবক। বৃদ্ধকে মারধরের পরপরই প্রত্যক্ষদর্শীদের তোপের মুখে পড়েন ওই যুবক। এই ঘটনার ১ মিনিট ৮ সেকেন্ড দীর্ঘ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

শনিবার (৩০মার্চ) বিকেলে জেলা শহরের চৌরাস্তায় এ ঘটনাটি ঘটে বলে ভিডিও সূত্রে জানা গেছে। এ নিয়ে আলোচনা, সমালোচনা ও নিন্দার ঝড় ওঠে।

এদিকে বৃদ্ধ অটোরিকশা চালককে মারধরের ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর ওই যুবককের বিচার দাবি করেছেন নেটিজেনরা। তবে অভিযুক্ত যুবক ও ভুক্তভোগী অটোরিকশা চালককের পরিচয় এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

ঘটনার সময় এক প্রত্যক্ষদর্শীর ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যায়, বৃদ্ধ রিকশাচালক কান্নাজড়িত কণ্ঠে পথচারীদের বলছেন ৩০ টাকা ভাড়া চাওয়ায় ওই যুবক আমাকে থাপ্পড় মারে এবং নোংরা ভাষায় গালিগালাজ করেন। এসময় বৃদ্ধ অটোচালক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। আর বলতে থাকেন আমি কি দোষ করেছি, আমি রোজা আছি, কেন আমাকে থাপ্পড় মারলো?

বৃদ্ধকে থাপ্পড় মারার পর পথচারীদের তোপের মুখে পড়েন ওই যুবক। এসময় বৃদ্ধ রিকশা চালকের কাছে ক্ষমা চাইতে বললে যুবক বলে উঠে রিকশাওয়ালার দোষ, আমি কেন ক্ষমা চাইবো।

বৃদ্ধকে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেয়ায় এরই মধ্যে ওই যুবককের বিচার চেয়ে নেটিজেনরা বিভিন্ন মন্তব্য করতে থাকেন। আর তার কঠোর শাস্তি দাবি করেন যাতে ভবিষ্যতে আর কোন ব্যক্তির উপর এমন অমানবিক আচরণ করতে না পারেন।

আর নিরীহ মানুষের ওপর নির্যাতনের এরকম ঘটনা অহরহ ঘটছে জেলাজুড়ে। এসব ঘটনায় জড়িতদের বেশিরভাগ উঠতি বয়সের তরুণ-তরুণী। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো তৎপরতা না বাড়ালে এই যুবসমাজকে নৈতিক স্খলনের হাত থেকে রক্ষা করা কঠিন হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন সমাজ উন্নয়নকর্মী এস.এম. মনিরুজ্জামান মিলন।
তবে গতকালের ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কেউ অভিযোগ করলে আইনানুক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.বি.এম ফিরোজ ওয়াহিদ।